Robot Journalist

Robot Journalist: করোনাভাইারাসের থাবায় সাংবাদিক ছাঁটাই, রোবট জার্নালিস্ট নিয়োগ করল এই সংবাদ মাধ্যম

মহামারী করোনাভাইারাসের (Coronavirus) বাজারে নয়া বিপদ। সাংবাদিকদের চাকরি খেতে এসে গেল রোবট জার্নালিস্ট (Robot Journalist)। শোনা যাচ্ছে মাইক্রোসফট (Microsoft) এই রোবট জার্নালিস্ট নিয়োগ করে কর্মী ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একেই লকডাউনের জেরে সংবাদ মাধ্যমের বিজ্ঞাপন সংক্রান্ত আয় মাথায় উঠেছে। যার ফলে দেশের তৃতীয় দফার লকডাউন চলাকালীন বিভিন্ন সংস্থার মতো মিডিয়া কর্মীরাও চাকরি খোয়াতে শুরু করেন। লকডাউনের চতুর্থ দফায় পশ্চিমবঙ্গেই অনেক মিডিয়া কর্মী ছাঁটাই হয়েছেন। তালিকায় রয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা, এই সময়-এর মত সংবাদ মাধ্যম সংস্থা গুলি।



তবে মার্কিন তথ্য প্রযুক্তি সংস্থা মাইক্রোসফটের (Microsoft) বক্তব্য, কোভিড-১৯ মহামারীর (Coronavirus) জেরে এই ছাঁটাই পর্ব নয়। বহুদিন ধরেই সংস্থাটি কর্মীর বিকল্প হিসেবে রোবট (Robot Journalist) তৈরির কাজ করে যাচ্ছিল। এমনিতেই শীর্ষে থাকা এই টেক জায়ান্টের একটা সংবাদ বিভাগ রয়েছে। এমএসএন নিউজ (msn news) আজ সারা বিশ্বে এক পরিচিত নাম। আরও পড়ুন-বাইকে চড়ে সুপুরি পাড়ছেন কৃষক, ভাইরাল ভিডিও

Robot Journalist
রোবট জার্নালিস্ট(Photo Credits: Pixabay)

ভারতেও মাইক্রোসফট নিউজের অফিস রয়েছে। সেখানে, ইংরাজি, হিন্দি, মারাঠি, তামিলের পাশাপাশি বাংলা বাষাতেও সংবাদ প্রকাশ হয়। মাইক্রোসফট নিউজ যদি মার্কিন মুলুকের সাংবাদিক তাড়াতে রোবট জার্নালিস্ট (Robot Journalist) নিয়োগ করে, তাহলে ভারতও সেই তালিকা থেকে যে বাদ পড়বে না, তা ভালোই বোঝা যাচ্ছে।



তাহলে এতদিন যে আমরা কথার কথা হিসেবে বলতাম যন্ত্রের যা উন্নতি চলছে, এমন এক সময় আসবে যখন সে মানুষের জায়গা নেবে। অর্থাৎ মানুষকে সরিয়ে রোবট (Robot Journalist) করবে সব কাজ। সমস্ত বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান এমন কর্মঠ রোবট পেলে আর মানুষকে কাজে লাগাবে না। কেননা কর্মী নিয়োগ মানেই তাকে বেতন দিতে হবে। প্রফিডেন্ট ফান্ডের বন্দোবস্ত করতে হবে, গ্রাচুইটি আছে, সঙ্গে ইনসিওরেন্স, মেডিক্যাল লিভ, ক্যাজুয়াল লিভ, আর্ন লিভ। বছর বছর মহার্ঘ্যভাতা বাড়াতে হবে। বেতন বাড়ানোর প্রসঙ্গ তো রয়েইছে। আরও পড়ুন-গরমকে ছক্কা হাঁকাতে বাজারে এল এসি শার্ট, এক চার্জেই ফুরফুরে ঠান্ডা

আর রোবট যদি কাজে আসে তাহলে, এসবের কোনও ঝামেলা নেই। শুধু মেকানিজম ঠিক রাখতে একটা আলাদা বিভাগের বন্দোবস্ত করলেই হবে। যেখানে রোবটের মেকানিজমের নিয়ন্ত্রণে শুধু মানুষ কাজ করবে। তাহলে দেখা যাচ্ছে, রোবট জার্নালিস্ট (Robot Journalist) নিয়োগ মানে শুধুই লাভ, খরচের তেমন বালাই নেই। ইউনিয়নের ঝামেলাও নেই। রাতদিন কাজ করালেও উচ্চবাচ্চ করবে না।

Robot Journalist
রোবট জার্নালিস্ট(Photo Credits: Pixabay)

তাই আগামী জুন মাসের শেষ থেকেই কর্মী ছাঁটাই শুরু করবে মাইক্রোসফট (Microsoft)। শোনা যাচ্ছে এমএসএন নিউজের অন্তত ৫০ শতাংশ অস্থায়ী কর্মীকে শুরুতেই পদত্যাগ করানো হবে। তারপর রোবট জার্নালিস্টের (Robot Journalist) রমরমা বাড়লে ধীরে ধীরে বিভিন্ন বিভাগে শুরু হবে ছাঁটাই পর্ব। সিয়াটেল টাইমসের রিপোর্ট অনুসারে, এই নতুন নিয়োগ প্রাপ্ত রোবট জার্নালিস্টরা (Robot Journalist) এমএসএন নিউজে (msn news com) এসে খবর বাছাই করবে, লিখবে, পাবলিশও করবে। যে খবরগুলি মাইক্রোসফটের (Microsoft) ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।



এর পর দেখা হবে সংবাদ বিভাগের আর কোন কোন ক্ষেত্রে কাজে আসছে এই রোবট জার্নালিস্ট (Robot Journalist)। কাজের দক্ষতা অনুযায়ী এর পর বিভাগ ধরে ধরে শুরু হবে ছাঁটাই পর্ব। এদিকে মহামারীর (Coronavirus) তাড়ণায় যখন বিশ্ব অর্থনীতি ধুঁকছে তখন মাইক্রোসফট নিউজের এই কর্মী ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে। আরও পড়ুন-নিশ্চিন্তে বেড়াতে যান, এই স্মার্ট গ্যাজেট এবার আপনার ফাঁকা বাড়ির খেয়াল রাখবে



পরিস্থিতি সামাল দিতে আগেভাগেই মাইক্রোসফট (Microsoft) জানিয়েছে, রোবটকে কর্মী হিসেবে নিয়োগ করার প্রক্রিয়া বহু বছর ধরে চলছে। এতদিনে সেই কাজে সাফল্য আসতে শুরু করেছে। এখন জার্নালিস্ট রোবটের (Robot Journalist) নিয়োগের সঙ্গে কোনও ভাবেই মহামারী (Coronavirus) দায়ী নয়। এটা মাইক্রোসফটের নিয়মিত ব্যাবসারই একটা অংশ।

Robot Journalist
রোবট জার্নালিস্ট(Photo Credits: Pixabay)

এমনিতেই মহামারীর (Coronavirus) দাপটে অর্থনীতি মৃতপ্রায়। বিশ্বজুড়ে বহু মানুষ আজ কর্মহীন। জুনের শেষে মাইক্রোসফটের নিউজ (msn news com) প্রোডিউসারও চাকরি খোয়াচ্ছেন, সৌজন্যে রোবট জার্নালিস্টের (Robot Journalist) আগমন। রোবটরা সাংবাদিকতা করবে। তাদের কাজ আদৌ হচ্ছে কি না তা দেখতে কয়েকজন সাংবাদিককে রাখা হবে। এই দেখাশোনার দায়িত্ব পেয়ে বেশ কয়েকজন সাংবাদিক আপাতত ছাঁটাইয়ের বাইরে থাকছেন। আরও পড়ুন-করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে চাঁদে যেতে চান? সুবর্ণ সুযোগ দিচ্ছে নাসা




এদিকে চাকরি হারানোর খবর পেয়ে এক সাংবাদিক জানান, “সবসময় পড়তাম কীভাবে অটোমেশন আর তথ্যপ্রযুক্তি আমার চাকরি খেতে আসছে। আর এখন এখানে আমি। এবার তথ্যপ্রযুক্তি আমার চাকরি খেয়ে নিল।” তবে এই রোবট জার্নালিস্ট (Robot Journalist) নিয়োগের ক্ষেত্রে একটা চিন্তা থেকেই যাচ্ছে। সংস্থার সম্পাদকীয় নীতি নিয়ে বোধহয় এই রোবট ততটা সড়গড় নয়। তাই কিছু ক্ষেত্রে মানুষের দরকার পড়বেই।

করোনাভাইরাস (Coronavirus) মহামারীর গ্রাসে বিশ্ব অর্থনীতি বিপর্যের মুখে। এই পরিস্থিতিতে কর্মী ছাঁটাইয়ের বিষয়টি মাইক্রোসফট যতই বলুক নিয়মিত ব্যবসা, তবে তা কস্ট কাটিংয়ের মধ্যেই পড়ছে। রোবট জার্নালিস্টের (Robot Journalist) আগমনে কাজ হারাচ্ছেন সংবাদকর্মীরা।

 

Post Author: bongmag

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।