Shankha Ghosh

Shankha Ghosh Dies:“আমার বলে রইল শুধু, বুকের ভিতর মস্ত ধু ধু”

“তোমার স্বপ্নে কোনো বাস্তব নেই, বাস্তবে নেই কোনো স্বপ্ন।” করোনা বড় কঠিন বাস্তব। বাংলা কবিতার অশৌচকাল শুরু হল। চলে গেলেন শঙ্খ ঘোষ (Shankha Ghosh )। ৮৯-এ থামল কলম, জীবনের যতিচিহ্ন টেনে অচিনপুরে পাড়ি দিলেন বাঙালির জাগ্রত বিবেক। আজ যখন মানুষের থেকে ধর্ম বড় হয়ে ওঠে তখন আশ্বস্ত করে তাঁর কবিতা, “এদিকে আজান আর ওইদিকে সিয়ারাম। সব আছে ঠিকঠাক আঃ আজ কী আরাম।” সেই মানুষটাই আজ অতীত।

গত ১৪ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত হন প্রবীণ কবি। তখন থেকেই নিভৃতবাসে ছিলেন। দেশের এই সংকটজনক পরিস্থিতিতে তাঁর হাসপাতালে যাওয়ার কোনও ইচ্ছে ছিল না। তাই বাড়িতে চিকিৎসার বন্দোবস্ত করা হয়। মঙ্গলবার রাতে আচমকাই শঙ্খ ঘোষের (Shankha Ghosh ) শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হয়। বুধবার সকালে তাঁকে ভেন্টিলেটরে দেওয়া হয়। বেলা সাড়ে এগারোটা নাগাদ জীবনের প্রাপ্ত অক্সিজেনে দাঁড়ি পড়লে চলে গেলেন কবি। আরও পড়ুন-Pranab Mukherjee Dies: প্রয়াত ভারতীয় রাজনীতির চাণক্য প্রণব মুখোপাধ্যায়, বাংলাজুড়ে শোকের ছায়া

এই মহামারীতে যখন দোর এঁটে ভাইরাসহীন ঘরের কোণ খুঁজি তখন (Shankha Ghosh ) ভীষণভাবে মনে পড়ে, “আমাদের ডান পাশে ধ্বস/ আমাদের বাঁয়ে গিরিখাদ/ আমাদের মাথায় বোমারু/ পায়ে পায়ে হিমানীর বাঁধ/ আমাদের পথ নেই কোনো/ আমাদের ঘর গেছে উড়ে/ আমাদের শিশুদের শব/ ছড়ানো রয়েছে কাছে দূরে! আমরাও তবে এইভাবে/ এ-মুহূর্তে মরে যাব না কি ?/ আমাদের পথ নেই আর/ আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি।/ পৃথিবী হয়তো বেঁচে আছে/ পৃথিবী হয়তো গেছে মরে।/ তবু তো কজন আছি বাকি/ আয আরো হাতে হাত রেখে/আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি।” আরও পড়ুন-একটা বৃষ্টি দিন ও ভাল-বাসার নবনীতা

তাঁর একটা নাম ছিল, পোশাকী নাম চিত্তপ্রিয় ঘোষ। তবে আমরা তাঁকে শঙ্খ  ঘোষ (Shankha Ghosh )নামেই চিনি। তিনি আমাদের প্রিয় কবি। মানবতা যখন মুখ থুবড়ে পড়ে অহরহ। তখনই গর্জে উঠেছে তাঁর কলম। খড়গ হাতে তিনি ‘উন্নয়ন’কেও দাঁড় করিয়ে দিয়েছেন। সুযোগবুঝে কবিকে হেনস্তা করতে ছাড়েনি রাজনীতির কারবারিরা। আয়লা, বুলবুলে বিধ্বস্ত সুন্দরবন, সহায় সম্বলহীন মানুষগুলোর জন্য ত্রাণ গেছে কলকাতা থেকে। সঙ্গে আছেন কবি শঙ্খ ঘোষ (Shankha Ghosh )। আরও পড়ুন-Rituparno Ghosh: ঋতুপর্ণ ঘোষ ও এক ঋতু-ময় চিত্রকল্প

সামাজিক অবক্ষয়, মূল্যবোধের জলাঞ্জলি, ধার্মিক অস্থিরতা তিনি সবকিছুরই সহজ সরল বর্ণনা করে গেছেন তাঁর কবিতায়। জীবন-মৃত্যুর ওপারে শক্তি-সুনীল-উৎপল-বিনয় আর একা নন, শূন্যস্থান পূরণ করতে আজ থেকে শঙ্খ ঘোষের (Shankha Ghosh ) স্বর্গযাপন শুরু। মর্ত্যলোকের পর ফের পঞ্চপাণ্ডবের মিলন হতে চলেছে। শোকের পাথর সরিয়ে বাস্তবের কবিকে বিদায়ী সম্ভাষণ জানাও। জীবন-মৃত্যুর ওপারে বসুক কবিতার মহাসভা। আমরা শুধু অপেক্ষায় থাকি। “নিভন্ত এই চুল্লিতে মা/ একটু আগুন দে/ আরেকটু কাল বেঁচেই থাকি/বাঁচার আনন্দে”

Post Author: bongmag

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।