Hot Shower

এই শীতে এগুলি করলে মহাবিপদ, কেন জানেন?

শীত এসেছে, উত্তুরে হাওয়া জানান দিচ্ছে তার উপস্থিতি। এই পরিস্থিতিতে ত্বকের যত্ন না নিলে অচিরেই কিন্তু বিপদে পড়তে পারেন। শীতে ত্বকের যত্ন নিতে কত রকমের ময়শ্চারাইজার থেকে শুরু করে কোল্ড ক্রিম এবং কত উপচার ব্যবহার করেন। সেই সঙ্গে রূপটান তো আছেই। ঠোঁটের জন্য নানারকম ফ্লেভারের লিপ বাম বাজারে রয়েছে, শুধু পছন্দমতো বেছে নেওয়ার অপেক্ষা। তবে এই ঠান্ডায় বেশ কয়েকটি কাজ ভুলেও করবেন নাষ নাহলে আপনার সযত্নে লালিত ত্বকের দফা রফা হয়ে যাবে। সেগুলি ঠিক কী কী চলুন একবার দেখে নিই।

ঊষ্ণ গরম জলে স্নান করতে কীই না ভাল লাগে। এতে যেমন সারাদিনের ক্লান্তি দূর হয়, তেমন শরীরটাও তরতাজা হয়ে ওঠে। কিন্তু অতিরিক্ত গরম জলে বেশিক্ষণ ধরে স্নান না করাই ভাল,  তাতে ত্বকের আর্দ্রতার ক্ষতি হয় না। ভাবলেন কী আর হবে প্রাণ ভরে স্নানটা সেরেই নিই। ঠান্ডা তো আর লাগছে না, গরম জল তো মজুত আছে। একদম না, অতিরিক্ত গরম জলে বেশিক্ষণ ধরে স্নান করলে ত্বকের সহজাত আদ্রতা ক্রমশ হ্রাস পাবে। যা শরীরের জন্য মোটেও সুখকর নয়। কারণ এমনিতেই শীতে ত্বকে টান ধরে এবং এরপর গরম জল পড়তে তা আরও শুষ্ক হয়ে ওঠে। আরও পড়ুন-রুক্ষ চুলের একঘেয়ে সমস্যা? মুক্তি পেতে রইল ঘরোয়া উপায়

স্নানের আগে তেল মাসাজ করলেও স্নানের পর অতি অবশ্যই ময়েশ্চরাইজ়ার ব্যবহার করতে হবে| তা না হলে শুষ্ক ত্বকের সমস্যা কোনওদিন কমবে না৷ ত্বক অল্প ভিজে থাকা অবস্থাতেই ময়শ্চরাইজারর লাগানো প্রয়োজন|এই সময় খুব কড়া সাবান ত্বকের আদ্রতা কেড়ে নেয়, হালকা কোনও সাবান বা সোপ ফ্রি ক্লিনজার ব্যবহার করা উচিত| বেসন, মুসুর ডাল বাটা, চালের গুঁড়ো ইত্যাদি দিয়ে ত্বক খুব ভালভাবে পরিষ্কার করা যায়| সেক্ষেত্রে ক্লিনজার বা স্ক্র্যাবার ব্যবহারের ক্ষেত্রেও এই সতর্কতা মেনে চলা উচিত|

এই সময় অ্যালকোহলযুক্ত টোনার বা যে কোনও স্কিনকেয়ার প্রোডাক্ট এড়িয়ে চলাই ভালো, এগুলি ব্যবহারে ত্বকের আর্দ্রতার ভাঁড়ারে টান পড়ে৷ শীতের মিঠে রোদে পিঠ দিয়ে বসতে কার না ভাল লাগে। ব্যালকনি রোদ্দুর এলো কি এল না। অমনি আপনি ইজিচেয়ারে গা এলিয়ে গল্পের বই নিয়ে জমিয়ে বসলেন। বেশ ঊষ্ণ আমেজে মনটা ভরে উঠল। তবে অহেতুক ত্বকে রোদ না লাগানোই ভাল, বিশেষ করে সকাল ন’টার পর| সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন| ছাতা, টুপি, সানগ্লাসও রোদের হাত থেকে বাঁচাবে| লিপ বাম কেনার সময়েও এমন কিছু বাছুন যার মধ্যে এসপিএফ আছে| ছাতাকে একেবারে বিদায় করে দেবেন না যেন। তাহলে ট্যান সমস্যা পিছু ছাড়বে না।

এই সময় নানা রকম সবজি বাজারে থাকে। শুধু পছন্দমতো খেয়ে ফেলুন। তেল ঝাল মশলাদার খাবারের পাশাপাশি শীতের শবজি যেন আপনার মেনুতে থাকেই থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখবেন। ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, ভিটামিন সি, আর ম্যাগনেশিয়াম প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় থাকলে ত্বক ভিতর থেকেই সুরক্ষা পাবে৷ ত্বককে ভাল রাখতে হলে নিয়মিত যোগব্যায়াম করতে হবে। শরীরচর্চা ত্বকের ওপর গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলে| হয়তো সবার পক্ষে সবটা করা সম্ভব নয়, তাও যদি নিয়মিত অভ্যাসে আনা যায় তাহলে ত্বক ও ভাল থাকবে| আর ত্বক সতেজ থাকলে মন শরীর সবই ভাল থাকে| শীতকাল চেটেপুটে উপভোগ করুন। শুধু একটু মেনে চলুন। দেখবেন শরীর আপনার সঙ্গেই আছে সুস্থতা নিয়ে।

 

 

Post Author: bongmag

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।