TIKTOK Ban

TikTok Ban: মুখ, পা বাঁধা অসহায় কুকুরকে পুকুরে ফেলে ছোঁড়া হল পাথর, ভাইরাল টিকটক ভিডিও

নিজেদের গুণেই এবার বড়সড় সমস্যায় পড়তে চলেছেন ভারতীয় টিকটক (TikTok Ban) ইউজাররা। গত কয়েকদিনে বেশকিছু ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, দেশের টিকটকারদের বড় একটা অংশ এই সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের অপব্যবহার করছে। স্বভাবতই টিকটক-কে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার দাবিতে নেটদুনিয়া তোলপাড়। পোষ্যদের উপরে অত্যাচারে উৎসাহ দিচ্ছে টিকটকাররা, এটা আর গুরুতর অভিযোগ নয়। একেবারে প্রমাণ হয়ে গেছে। আরও পড়ুন-করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে চাঁদে যেতে চান? সুবর্ণ সুযোগ দিচ্ছে নাসা

TikTok Ban, কুকুরের উপরে চলছে অত্যাচার

এই নারকীয় ভিডিওর একটিতে দেখা যাচ্ছে, রাস্তার কুকুরের উপরে অকথ্য অত্যাচার চালাচ্ছে টিকটকাররা। তার মুখ ও দুটো পা শক্ত করে বেঁধে, পুকুরের মধ্যে ছুঁড়ে ফেলা হচ্ছে। এরপর ডুবন্ত কুকুরের উপরে চলছে পাথর ছোঁড়া। ভিডিওটিতে দুই কিশোরকে দেখা গেলেও তাদের চিহ্নিত করা যায়নি। অসহায় কুকুরটিকে জলে ফেলার দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় (TikTok Ban) পোস্ট হতেই নিন্দায় মুখর হয়েছে নেটিজেনরা। বিভিন্ন পশুপ্রেমী সংগঠনের তরফ থেকেও উঠেছে প্রতিবাদের ঝড়। এই ঘটনায় দৃশ্যত ক্ষুব্ধ পশুপ্রেমী সংগঠন পেটা, ইতিমধ্যেই ৫০ হাজার টাকার পুরস্কার মূল্য ঘোষণা করেছে। আরও পড়ুন-মারণ টিউমার বাদ দিতে মাথায় চলেছে জটিল অস্ত্রোপচার, অপারেশন টেবিলে বেহালা বাজাচ্ছেন রোগিণী

TIKTOK Ban
নারকীয় দৃশ্য (Photo Credits: @Tarunchoubey4/ Twitter




যারা অসহায় কুকুরের সঙ্গে এমন নির্দয় আচরণ করল, তাদের চিহ্নিত করতে পারলে বা তাদের সম্পর্কে কোনও খবরের সূত্র দিতে পারলে তথ্য বাহককে ওই আর্থিক পুরস্কার দেবে পেটা। এনিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো প্রচার চলছে। তবে এখনও পর্যন্ত গুণধর দুই টিকটকারের (TikTok Ban) টিকি ছুঁতে পারেনি কেউ। গত সপ্তাহেই টুইটারে প্রথম এই নারকীয় ভিডিওটি শেয়ার হয়। তারপর অভিযুক্তদের শাস্তির দাবিতে ভিডিওটি হু হু করে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। এই গোটা ঘটনার পিছনে তিনজনের ভূমিকাই বেশি যে দুজন কুকুরের উপরে অত্যাচার করছিল, আর তিন নম্বর ব্যক্তি যে নারকীয় ঘটনাকে ফ্রেমবন্দি করছিল। আরও পড়ুন-মারণ রোগ করোনাভাইরাসকে রুখতে কীভাবে সতর্ক হবেন? নেচে দেখালেন পুলিশকর্মীরা (দেখুন ভিডিও)



যদি কেউ তিন অভিযুক্তকে শনাক্ত করতে পারেন তাহলে পেটা ইন্ডিয়ার হেল্পলাইন নম্বরে +91 9820122602 যোগাযোগ করুন। ইমেলেও তথ্য দিতে পারেন। এই সম্পর্কিত তথ্য প্রদানকারীকে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার দেবে পেটা। হিংস্র মনোবৃত্তির লোকজনের হাত থেকে অসহায় পশু ও মানুষকে রক্ষা করাই পেটার অন্যতম কাজ। কেননা প্রথমে পশুর উপরে অত্যাচারে সফল হলে এই পাষণ্ডরা নারকীয় আনন্দ লাভের জন্য মানুষকে পরের ধাপে বেছে নেয়।



তবে এখনও পর্যন্ত সেই তিন অভিযুক্তের (TikTok Ban) খোঁজ মেলেনি। ঘটনাটি কোথাকার তা-ও জানা যায়নি। এদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক পশুদের উপরে ঘটে চলা নারকীয় অত্যাচারের ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই নেটিজেনরা #BanTikTokIndia-কে ট্রেন্ডিং করতে শুরু করেছে। আরও পড়ুন-৬ বছর বয়সেই ছুঁয়ে ফেলল এভারেস্ট বেস ক্যাম্প, চেনেন নাকি এই খুদেকে?



এই প্রসঙ্গে জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ার পার্সন রেখা শর্মা কেন্দ্রের কাছে টিকটক নিষিদ্ধ  (TikTok Ban) করার আবেদনও জানিয়েছেন। তিনি মনে করেন, এই চিনা অ্যাপসটি দেশের তরুণ প্রজন্মকে অন্ধকারের দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

Post Author: bongmag

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।