এই ক্রিসমাসে প্রিয়জনকে এগলেস ভ্যানিলা কেক খাওয়াতে চান? রইল রেসিপি

সাতসকালে পায়ের দিকের জানলাটা খুলতেই উত্তুরে হাওয়া ঝাঁপিয়ে ঘরে ঢুকে পড়ল। হাইনেক গেঞ্জি ফুরে রণিতের হৃৎপিণ্ডে গিয়ে যেন সুরসুরি দিচ্ছে শীত। ঠান্ডা লাগানোর ভয়ে তাড়াতাড়ি কম্বলটা টেনে নেয় সে। একটা আদুরে বিড়ালের মতো আয়েশি রোদ্দুর মেঝেতে খেলে বেড়াচ্ছে। ছুটির দিনের সকালটা ভাল হয়ে গেল। মাত্র কয়েকদিনের ব্যবধানে ক্রিসমাস, সেই আমেজ জানান দিচ্ছে বাইরের পরিবেশ| বছরের এই সময় মানুষের মধ্যে কেক খাওয়ার ইচ্ছাটা একটু বেড়েই যায়| রণিতেরও বেড়েছে। বন্ধুদের কাছে গুড শেফের খ্যাতিটা কেমন যেন বাহবা পেতে চাইছে। তাছাড়া শীতের সন্ধ্যায় বা সকালে এক টুকরো কেকের সঙ্গে কফি না হলে শীতকালের বাকি মজাই মাটি| আর সঙ্গে যদি নিজের হাতে তৈরি কেক হয় তাহলে তো কথাই নেই।

বিকেলে ইনায়াকে চায়ের আড্ডায় ডেকেছে রণিত। অফিস ফেরত নৈঋতও আসবে। ইনায়া মারাঠি ব্রাহ্মণ, পিওর ভেজিটেরিয়ান। ডেটিংয়ে তাই পছ্ন্দমতো খাবার ওকে খাওয়ানোই হয়নি। তাইতো বাড়িতে ডাকল, এলগেস ভ্যানিলা কেক বানিয়ে হটকে গার্লফ্রেন্ডকে চমকে দিতে চায় সে। নৈঋত আবার নাচে, ডিম প্রায় খায়ই না বললে চলে। ভ্যানিলা কেক তৈরি হলে এরা না করবে না। এখন তো অনেকে ডিমের কুসুম অপছন্দ করেন। কেউবা স্বাস্থ্যের কথা ভেবে খান না| কারও কারও মতে ডিমে আছে অনেক ফ্যাট যা খেলে ডায়েটে বাধা পড়বে| আরও পড়ুন-রবিবারের মিষ্টিমুখ, জর্দা পোলাও

কিন্তু এদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যারা কেক খেতে পছন্দ করেন| বিভিন্ন রঙ, আকার বা উপাদানের তৈরি কেক দেখলে লোভ সামলানো যায় না| আজ কেক বানিয়ে যদি ইনায়ার মন ভরাতে পারে তাহলে শুধু ২৫ ডিসেম্বরের নিমন্ত্রণটাই শুধু নয়, গার্লফ্রেন্ডের জন্মদিনের কেক বানানোর দায়িত্ব মাথায় করে নিতে রাজি রণিত। এবার দেখে নিই এগলেস কেক তৈরির ফান্ডা।

 মনে রাখা ভালো-

ডিম ছাড়া কেক তৈরি করতে অন্যান্য কেকের তুলনায় একটু বেশি সময় লাগে| কলা, দই, আপেল সস এগুলো ডিমের বিকল্প হিসেবে দারুণ কাজ করে| এই ধরনের কেক খুব অল্প আঁচে বেক করতে হয়। কারোর হয়তো জানা নেই যে ডিম ছাড়া কেক কেমন খেতে লাগবে| তাই আজ আপনাদের সামনে এমন এক রেসিপি নিয়ে হাজির হয়েছি তার স্বাদ না খেলে বুঝবেন না|

উপকরণ

আড়াই কাপ ময়দা

দুই টেবিল চামচ চিনি

দুই চা চামচ বেকিং সোডা

এক চা চামচ বেকিং পাউডার

এক কৌটো কনডেন্সড মিল্ক

এক কাপ জল

দুই টেবিল চামচ ভিনেগার

দুই টেবিল চামচ ভ্যানিলা এসেন্স

আধ কাপ মাখন(গলানো)

 প্রণালী

ওভেন ৩৫০ ফারেনহাইট বা ১৮০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপে গরম করে নিন| বড় একটি পাত্রে ময়দা, বেকিং পাউডার, বেকিং সোডা এবং চিনি মেশান| মিশ্রণের পাত্রের মাঝে চামচ দিয়ে গোল জায়গা করে নিন| ওই ফাঁকা অংশে বাকি উপাদানগুলো এক এক করে মিশিয়ে ভাল করে ফেটিয়ে নিন| একটি প্রমাণ সাইজের প্যানে মাখন ব্রাশ করে নিন| এর পর কেকের মিশ্রণ প্যানে ঢেলে দিন। তারপর ২৫-৩০ মিনিট বেক করলেই তৈরি এগলেস ভ্যানিলা কেক। আরও পড়ুন-এই রেস্তরাঁয় একটা বার্গার কিনতেই পকেট থেকে খসে ৬৫ হাজার টাকা, কেন জানেন?

রাতে কফির কাপ হাতে নিয়ে সেই উত্তরের জানলায় দাঁড়িয়ে রণিত। সন্ধেটা দারুণ কাটল অনেক দিন পর। বাবা-মা থাকতে সবাই আসত। উইকএন্ডে বাড়িটা গমগম করত। ওদের সেপারেশনের পর কখনও মায়ের বন্ধুদের সঙ্গে কখনও বাবার পরিচিতদের সঙ্গে আলাদা আলাদা উইকএন্ডে কেটেছে। নাহ সেসবে তেমন আনন্দ থাকত না। সবারই সেপারেশন নিয়ে খুচিয়ে প্রশ্ন করার বাতিক। কলেজে উঠতেই রণিত উইকএন্ডে বাড়িতে থাকত না। একপ্রকার পালিয়ে বাঁচত। কয়েকজন সুখী মানুষের পরচর্চরা খোরাক হতে তার আপত্তি ছিল। কলেজে পড়তে পড়তেই বাবা-মাকে বলেছিল, এবার থেকে একাই থাকবে সে। ওরা যেন নিজেদের মতো জীবন কাটায়। বাবা একটু ইতস্তত করলেও মা কিছুই বলেননি। তারপর থেকে রান্না করেই উইকএন্ড কাটছে রণিতে।

Post Author: bongmag

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।